এক্সক্লুসিভ



দেশদর্পণ ডেস্ক

এপ্রিল / ০৩ / ২০২১


মামুনুল হকের ‘দ্বিতীয় স্ত্রী’ যা বললেন


1707

Shares

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের একটি অভিজাত রিসোর্টে ‘দ্বিতীয় স্ত্রী’কে নিয়ে অবস্থান করার সময় অবরুদ্ধ হয়েছেন হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক। মামুনুল হকের দ্বিতীয় স্ত্রীর একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।  ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায় একজন নারী মামুনুল হকের স্ত্রীকে বিভিন্ন প্রশ্ন করছেন এবং তিনি সেসব প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছেন। কথোপকথনের বিস্তারিত তুলে ধরা হলো-

: আপনার নাম কী?

:: জান্নাত আরা ঝর্না

: আপনার বাবার নাম?

:: ওয়ালিউর রহমান।

: বাড়ি কোথায়?

:: ফরিদপুর, ভাঙ্গা থানায়... আলফাডাঙ্গা থানা

: একটু আগে বললেন ভাঙ্গা থানায়।

:: না, ভাঙ্গা থানায় না, ভুল হয়ে গেছে।

: আপনি মামুনুল হক সাহেবের সেকেন্ড ওয়াইফ না?

:: হ্যাঁ

: আপনাদের কোনো বেবি নেই?

:: না

: মামুনুল হকের প্রথম স্ত্রীর কয়জন সন্তান?

:: চারজন

: মেয়ে নেই?

:: না।

: এখানে কখন এসেছেন?

:: আজ জোহরের পরে

: এর আগে কোথায় ছিলেন?

:: বাসায় ছিলাম

: বাসা কোথায়, কোন বাসায়, ঢাকায়?

:: জি

: ঢাকায় বাসা কোথায় আপনাদের

:: মোহাম্মদপুর

: মোহাম্মদপুর কোথায়?

:: মোহাম্মদপুর ওখানে বাসা

: এখানে কি বেড়াতে এসেছিলেন নাকি থাকতে এসেছিলেন?

:: বেড়াতে এসেছিলাম

: কোথায় বেড়াতে এসেছিলেন?

:: না এখানেই এসেছিলাম, রেস্টে

: বাসায় রেস্ট করার যায়গা নেই?

:: অবশ্যই আছে। বাসায় কি সবাই সব সময় রেস্ট করে? বাহিরে কেনো যায়, দেশের বাহিরেওতো যায়, যায় না?

: হ্যাঁ, দেশের বাহিরে যায়, কিন্তু প্রাকৃতিক পরিবেশ দেখতে যায়

:: এখানে প্রাকৃতিক পরিবেশ দেখতে দেখতেই আমরা এখানে এসেছি। একটু রেস্ট করেই চলে যাবো।

: হঠাৎ করে সোরগোল কেনো হলো, বা কী করে সবাই জানলো?

:: আমি এ বিষয়ে কিছু জানি না

: আপনি বাথরুমে কেনো আসলেন?

:: অ্যাকচ্যুয়ালি অনেক মানুষ তাই

: আপনার তো হাসবেন্ড

:: আমার হাজবেন্ড ঠিক আছে। বাট আমার হাজবেন্ড তো অন্য আট-দশজনের মতো সাধারণ কেউ না, আমি সবার সামনে যেতে পারি না তাই
রাজধানীর অদূরে সোনারগাঁয়ের রয়্যাল রিসোর্টে নারীসহ অবরুদ্ধ হেফাজত নেতা মামুনুল হককে ছিনিয়ে নেন সংগঠনটির কর্মীরা। রয়্যাল রিসোর্ট থেকেই শনিবার সন্ধ্যায় তাকে স্থানীয় একটি মসজিদে নিয়ে যায় ধর্মভিত্তিক সংগঠনটির নেতাকর্মীরা।

জানা যায়, মামুনুল হককে অবরুদ্ধ করা হয়েছে এমন খবর ছড়িয়ে পড়ার পরই হেফাজতের হাজারও কর্মী মিছিল নিয়ে রিসোর্টটিতে যান। তারা রিসোর্টে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়। একপর্যায়ে মামুনুল হককে উদ্ধার করে পাশের একটি মসজিদে নিয়ে যান।

এক্সক্লুসিভ