সিলেট প্রতিক্ষণ



নিজস্ব প্রতিবেদক

মে / ০১ / ২০২১


ভালো নেই সিলেটের শ্রমজীবীরা

মে দিবসে ভালো নেই সিলেটের শ্রমজীবীরা


124

Shares

করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে চলমান লকডাউনে কষ্টে আছেন সিলেটের দিনমজুর, কৃষিশ্রমিক, দোকানদার, ফুটপাতের ব্যবসায়ী, গাড়ি ও রিকশাচালক এবং পরিবহন শ্রমিকরা। কাজ হারিয়ে তারা এখন ঘরবন্দি, বিপাকে। এমন নির্মম বাস্তবতায় শনিবার (১ মে) শ্রমজীবী মানুষের অধিকার আদায়ের দিন ‘মে দিবস’ পালিত হচ্ছে সিলেটসহ সারা দেশে।

তবে সবকিছু পেছনে ফেলে সিলেটের খেটে খাওয়া এই মানুষগুলো অপেক্ষায় আছেন সুসময়ে ফেরার।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন সিলেট আঞ্চলিক কমিটি সূত্রে  জানা গেছে, সিলেট জেলায় গণপরিবহন সংশ্লিষ্ট প্রায় ৫০ হাজার শ্রমিকের জীবিকা নির্বাহ হয় গাড়ির চাকা ঘুরলে। কিন্তু চলমান করোনা পরিস্থিতিতে তারা কাজ হারিয়ে এখন আছেন ভীষণ কষ্টে।

সিলেট মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে সরকারি-বেসরকারি চলমান উন্নয়ন প্রকল্পের কাজে নিয়োজিত অনেক শ্রমিকই জানেন না ‘মে দিবস’ এর কথা। তাদের ভাষায়, দিবস দিয়ে কি হবে- যদি পেটে ভাত না থাকে। তবে শ্রমঘন্টার অতিরিক্ত সময় কাজ করানো, ন্যায্য মজুরি না পাওয়ার কষ্ট তাদের কুঁড়ে কুঁড়ে খায়। কাজ হারানোর ভয়ে পান না প্রতিবাদ করার সাহস।

এদিকে, ‘লকডাউনে’ যাত্রীবাহী পরিবহন বন্ধের ফলে আয়হীন হয়ে পড়েছেন সিলেটের বাস শ্রমিকেরা। লকডাউন সব থেকে বেশি প্রভাব পড়েছে তাদের উপর। এই জন্য চলমান লকডাউনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাস চালুর দাবি জানিয়েছেন বাস শ্রমিকরা।  

তারা বলছেন, ‘লকডাউনে’ বাস ছাড়া সবই চলছে। বাস চালু না থাকায় স্বাস্থ্যবিধি না মেনে বিকল্পভাবে সিএনজি চালিত অটোরিকশা, টেম্পু,  মাইক্রোবাস, স্টাফ বাস এমনকি অ্যাম্বুলেন্সেও গাদাগাদি করে যাত্রী বহন করা হচ্ছে। এতে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। বরং স্বাস্থ্যঝুঁকি আরও বাড়ছে। লকডাউনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাসে সিটের অর্ধেক যাত্রী তথা ২ সিটে একজন যাত্রী নিয়ে বাস চালু থাকলে করোনা সংক্রমণ বাড়ার সম্ভাবনা থাকবে না। বাস চালুর ব্যাপারে সিলেটসহ সারা দেশের পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। বাস চালুর দাবিতে সিলেটে লকডাউন ভেঙে মিছিল-সমাবেশ করেছেন পরিবহন শ্রমিকরা।

শ্রমিকরা বলছেন- সামনে ঈদ। হাজার হাজার শ্রমিক কর্মহীন অবস্থায় পড়ে আছেন সিলেটে। বহু গরিব মালিক ব্যাংক ঋণের কিস্তিসহ অসহায় অবস্থায় জীবন-যাপন করছে। এসব দিক বিবেচনা করে কর্মহীন শ্রমিকদের খাদ্য সহযোগিতা প্রদানসহ বাস চালু করতে সরকারের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছেন শ্রমিকরা।

সিলেট প্রতিক্ষণ