জাতীয়, লিড নিউজ



দেশদর্পণ ডেস্ক

২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১:০৫ পূর্বাহ্ণ




দেশবাসীর ওপর আস্থা আছে : প্রধানমন্ত্রী

দেশদর্পণ ডেস্ক :: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশবাসীর ওপর আমার আস্থা আছে, বিশ্বাস আছে। আমাদের তরুণ সমাজ অনেক উদ্যোগী সেটাই আমাদের সব থেকে বড় সম্পদ। মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণে সরকারের বিগত ৯ বছর এবং পূববর্তী ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত মেয়াদে সরকারে থাকার সময়কার দেশের উন্নয়নের বিস্তারিত পরিসংখ্যান তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, আমরা আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে আপনাদের জীবনমান সহজ করা এবং উন্নত করার উদ্যোগ নিয়েছি। আপনারা আজ সেসব সেবা পাচ্ছেন।

শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ ইতোমধ্যে নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশের মর্যাদা পেয়েছে। মাথাপিছু আয় ২০০৫ সালের ৫৪৩ ডলার থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ১ হাজার ৬১০ ডলারে উন্নীত হয়েছে। দারিদ্র্যের হার ২০০৫-০৬ অর্থবছরে ৪১ দশমিক ৫ শতাংশ থেকে ২২ শতাংশে হ্রাস পেয়েছে। হতদরিদ্র ২৪ দশমিক ২৩ ভাগ থেকে ৭ দশমিক ৯ ভাগে নেমে এসেছে। আমরা আগামী মার্চ মাসেই বিশ্বের উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে গ্রাজুয়েশন লাভ করতে যাচ্ছি। তখন কেউ আর আমাদের অবহেলা করতে পারবে না।

এসময় তিনি বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও রায় কার্যকর করা হয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকারীদের বিচারের রায় কার্যকর হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর যেসব খুনিরা এখনও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পলাতক রয়েছে তারা নানামুখী ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। তাদের দেশে ফিরিয়ে এনে বিচারের রায় কার্যকর করাতেও সরকার সচেষ্ট রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী এ সময় জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস এবং মাদক সম্পর্কে অভিভাবকদের সতর্ক করে দিয়ে তাদের সন্তানদের সঙ্গে বন্ধুর মত সম্পর্ক গড়ে তুলে তারা কী করছে, কোথায় যাচ্ছে, কার সঙ্গে মিশছে তা খোঁজ রাখার আহ্বান জানান।

সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে সরকারের জিরো টলারেন্স নীতির পুনরোল্লেখ করে অভিভাবক, শিক্ষক, ইমাম, জনপ্রতিনিধিসহ সকল শ্রেণী-পেশার মানুষকে কাজ করে যাওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

-বাসস

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর