খেলাধুলা



দেশদর্পণ ডেস্ক

২৮ মার্চ ২০১৮, ৩:৩০ পূর্বাহ্ণ




৭ এর শোধ ১-এ নিল ব্রাজিল

দেশদর্পণ ক্রীড়া :: ২০১৪ সালের বিশ্বকাপ সেমিফাইনাল। ব্রজিলের ভেতরে ৭-১ গোলে হারের যন্ত্রণা এঁকে দিয়েছিল জার্মানি।
৪ বছর পর প্রথমবার জার্মানির মুখোমুখি ব্রাজিল। এই জয় ব্রাজিলিয়ান ফুটবলের অন্ধকারাচ্ছন্ন ওই দিনটি মুছে না দিলেও ষষ্ঠ শিরোপার মিশনে আত্মবিশ্বাসী করে তুললো তিতের দলকে।

বার্লিনের অলিম্পিক স্টেডিয়ামে টানা ২২ ম্যাচ পর হারলো জার্মানি। গ্যাবিয়েল হেসুসের একমাত্র গোলে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা হারালো অজেয় থাকার তকমা। মঙ্গলবার প্রীতি ম্যাচে ১-০ গোলে তাদের বিপক্ষে জিতলো ব্রাজিল।

মিনেইরোর ওই ট্র্যাজেডির দিনে ছিলেন না নেইমার, বার্লিনেও তাদের প্রাণভোমরাকে পায়নি ব্রাজিল। তার অনুপস্থিতিতে সব আলো কাড়লেন ম্যানসিটির স্ট্রাইকার হেসুস। দ্বিতীয়ার্ধে পাউলিনিয়ো ও ফিলিপ কৌতিনিয়ো সুযোগ পেয়েও ব্যবধান দ্বিগুণ করতে পারেননি। জয়ের ব্যবধান ছোট হলেও ব্রাজিল প্রমাণ করলো, তারা প্রস্তুত। অন্যদিকে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে শতভাগ সাফল্য পাওয়া জার্মানির দুশ্চিন্তা বেড়ে গেলো এই হারে। আগামী জুনে অস্ট্রিয়া ও সৌদি আরবের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচ দিয়ে ফেরাতে হবে তাদের হারানো আত্মবিশ্বাস।

শুরুটা ভালো হয়নি ব্রাজিলের। ২০১৪ সালের বিশ্বকাপ সেমিফাইনালের ভূত যেন চার বছর পর আবারও চেপে বসেছিল তাদের ঘাড়ে। প্রথম ৩৫ মিনিট সুবিধা করতে পারেনি তারা। বরং জার্মানি দাপটের সঙ্গে আক্রমণ চালিয়েছে বেশ কয়েকবার।।

৯ মিনিটে টনি ক্রসের ফ্রিকিক থেকে বোয়েটাং বল দেন মারিও গোমেসকে, স্টুটগার্টের অ্যাটাকারকে সময়মতো বাধা দেন ব্রাজিলের গোলরক্ষক অ্যালিসন। ২১ মিনিটে লিওন গোরেৎকার গোলপোস্টের বেশ কাছ থেকে হেড নেন। কিন্তু বল চলে যায় গোলবারের পাশ দিয়ে। আবারও ৩৫ মিনিটে একইভাবে ব্যর্থ হন শ্যালকের এ মিডফিল্ডার।

ব্রাজিলের গোল উদযাপনপরের মিনিট থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর আভাস দেয় ব্রাজিল। ৩৬ মিনিটে দারুণ চেষ্টায় গোলের সুযোগ তৈরি করেছিলেন হেসুস। দুজন ডিফেন্ডারকে বোকা বানিয়ে লক্ষ্যে শট নেন, কিন্তু ক্রসবারের ওপর দিয়ে বল চলে যায় মাঠের বাইরে। এই ভুলের দুঃখ পরের মিনিটে কাটিয়ে ওঠেন ম্যানসিটির স্ট্রাইকার।

৩৭ মিনিটে উইলিয়ানের চমৎকার ক্রস মাপা হেডে গোলমুখে পাঠান হেসুস। জার্মান গোলরক্ষক কেভিন ট্র্যাপ হাত দিয়ে বল প্রায় আটকে দিয়েছিলেন। কিন্তু পেছনে পড়ে যাওয়ায় পারেননি ব্রাজিলের গোল ঠেকাতে। ১-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় তিতের শিষ্যরা।

বিরতির পর আরও কয়েকবার আক্রমণ চালায় ব্রাজিল। ৫৬ মিনিটে উইলিয়ানের শট দারুণ চেষ্টায় প্রতিহত করেন রুদিগার। দুই মিনিট পর কৌতিনিয়ো বল তুলে মারেন গোলবারের ওপর দিয়ে। ৬৮ মিনিটে হেসুসের হেড গোলবারের পাশ দিয়ে চলে যায়।

ইনজুরি সময়ে ড্র্যাক্সলারকে দারুণ দক্ষতায় রুখে দিয়ে ব্রাজিলের জয় নিশ্চিত করেন অ্যালিসন।

২০০৪ সালের পর প্রথমবার টানা চার ম্যাচ জয়হীন থাকলো আগের তিন ম্যাচে ড্র করা জার্মানি। আর ২০১৬ সালের পর প্রথম হারের স্বাদ পেলো তারা। ওইবার ইউরো সেমিফাইনালে ফ্রান্সের কাছে হেরেছিল বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর