সিলেট প্রতিক্ষণ



দেশদর্পণ ডেস্ক

২১ ডিসেম্বর ২০১৭, ১:৫৪ অপরাহ্ণ




স্কুলছাত্রী মুন্নীর হত্যাকারীর শাস্তির দাবিতে সিলেটে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবদেক ::  সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলায় ছুরিকাঘাতে নিহত স্কুল ছাত্রী হুমায়রা আক্তার মুন্নীর হত্যাকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সিলেটে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে মানববন্ধনের আয়োজন করে নারী বিষয়ক অনলাইন সাময়িকী উইমেন ওয়ার্ডস।

নারী মুক্তি সংসদ সিলেটের সভাপতি ইন্দ্রানী সেনের সভাপতিত্বে এবং সংস্কৃতিকর্মী ফাহমিদা খান উর্মির সঞ্চালনায় মানববন্ধনে একাত্মতা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্রাস্টের (ব্লাস্ট) সমন্বয়ক অ্যাডভোকেট ইরফানুজ্জামান চৌধুরী, সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) সিলেটের সভাপতি ফারুক মাহমুদ চৌধুরী, প্রবীণ সংস্কৃতি ব্যক্তিত্ব অম্বরীষ দত্ত, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সিলেটের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম কিম, সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটের সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত, ইনার হুইলের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা নাসরিন, শতভিষার মূখ্য নির্বাহী রীমা দাস, গণজাগরণ মঞ্চ সিলেটের মুখপাত্র দেবাশীষ দেবু, সংস্কৃতি সংগঠক এনামুল মুনীর, রাজনীতিকর্মী রণেন সরকার রনি প্রমুখ। শুরুতে স্বাগত বক্তব্য দেন উইমেন ওয়ার্ডসের সম্পাদক অদিতি দাস।

মানববন্ধনে অংশ নেন সিলেট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ রেনু, সাংবাদিক ইয়াহইয়া ফজল, সজল ছত্রী, সজল ঘোষ, নাট্য ও সংস্কৃতিকর্মী মোস্তাক আহমেদ, গৌতম দত্ত চৌধুরী, গৌরব দত্ত চৌধুরী, স্বপ্না দে, উত্তম কাব্য, সাগর দাস জন, মাসুম খান, লিপি রানী মোদক, সায়েম আহমেদ, এড. আজিজুর রহমান, শিমুল আক্তার মুন্নি, নাঈম প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ‘এধরণের ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে এসে আমরা প্রতিবার মনে মনে ভাবি এটাই যেন শেষবার হয়। কিন্তু আমাদের বারবারই রাজপথে দাঁড়াতে হয় বিচারের দাবি নিয়ে। এটা খুব বেদনাদায়ক।’ মুন্নীর হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে বক্তারা বলেন, ‘কঠোর বিচার না হলে এধরণের ঘটনা আরো বাড়বে। এই ঘটনা প্রমাণ করে নারী এখন তার নিজের ঘরেও নিরাপদ নয়। যে কোন সময় ঘাতকরা ঘরে ঢুকে নির্যাতন, নিপিড়ন কিংবা হত্যাকা- ঘটাতে পারে।’ এ বিষয়ে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়ে বক্তারা বলেন, ‘আমাদের ভাই, বাবা-চাচা, মা সবাই মিলে যেন আমাদের মেয়ে-বোনের নিরাপদ জীবন নিশ্চিত করি এবং নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধ করে তাদের সমমর্যাদার বিষয়টি নিশ্চিত করি।

প্রসঙ্গত, গত ১৬ ডিসেম্বর (শনিবার) রাতে ঘরে ঢুকে স্কুল ছাত্রী হুমায়রা আক্তার মুন্নীর পড়ার টেবিলেই উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে ঘাতক ইয়াহিয়া। প্রেমের প্রস্তাবে প্রত্যাখ্যাত হয়ে মুন্নিকে খুন করা হয় বলে এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়। মুন্নি দিরাই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০১৮ সালের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার কথা ছিলো।

এদিকে ঘটনার দু্’দিন পর গত সোমবার (১৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় মুন্নীর মা রাহেলা বেগম বাদী হয়ে ইয়াহিয়া ও তানভীরকে আসামি করে দিরাই থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। তানভীরকে আগেই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছিলো পুলিশ। মামলা দায়েরের পর তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। অন্যদিকে মুন্নি হত্যার ঘটনার পর থেকে গা ঢাকা দেয়া প্রধান অভিযুক্ত ‘ঘাতক’ মো. ইয়াহিয়া বুধবার (২০ ডিসেম্বর) রাত ১টার দিকে সিলেট সদরের দোরসা গ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

 

 

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর