খেলাধুলা



দেশদর্পণ ডেস্ক

১১ নভেম্বর ২০১৭, ৪:৫৫ অপরাহ্ণ




সিলেট সিক্সার্সকে বিধ্বস্ত করে ঢাকার বদলা

দেশদর্পণ ক্রীড়া :: বিপিএলের এবারের আসরে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ সিলেট সিক্সার্সের। আজ আবুল হাসান রাজু প্রতিরোধ না গড়লে সর্বনিম্ন রানের এমন এটা রেকর্ড করে রাখত সিলেট যেটা সহজে ভাঙ্গার সাধ্য আর কারও হতো না। তাইজুলকে নিয়ে ১০ম উইকেটে তার ৪৮ রানের জুটিতে শেষ পর্যন্ত ১০১ রানের পূঁজি পেয়েছিল আসরের নতুন এই ফ্র্যাঞ্চাইজি। যদিও ব্যাট করতে নেমে বলা চলে হেসেখেলে সেই লক্ষ্য পার হয়ে গেলেন ঢাকা ডিনামাইটসের দুই বিদেশী এভিন লুইস ও শহীদ আফ্রিদি। বোলিংয়ে সিলেটকে কাবু করার পর ব্যাট হাতেও বিধ্বংসী আফ্রিদিই হলেন ম্যাচ সেরা। আর প্রতিশোধের ম্যাচে ঢাকা ডায়নামাইটস জিতল ৮ উইকেটে।

ঘরের মাঠে চার ম্যাচের তিনটিতেই দাপুটে জয় পেয়েছিল সিলেট সিক্সার্স। এবারের আসরের সর্বোচ্চ স্কোরও এখন পর্যন্ত তাদেরই। এবার হয়ে গেল সর্বনিম্ন রানও। টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে ঢাকা ডায়নামাইটসকে উড়িয়ে দেওয়া নাসিরের দল ফিরতি ম্যাচের ঢাকার বোলারদের কাছে স্রেফ বিধ্বস্ত । টস হেরে ব্যাট করতে নেমে একের পর এক উইকেট পতন। ৫৩ রানে ৯ উইকেট হারানোর পর তাতে বাধ দেন রাজু আর তাইজুল। এতে কেবল বিব্রতকর পরিস্থিতিই এড়ানো গেছে।

১০১ রান তাড়া টি-টোয়েন্টিতে ডালভাত ব্যাপার। তা খুব তড়িঘড়ি তুলে নেয়ার পরিকল্পনা ছিল সাকিবদের। ওপেনিংয়ে তাই আফ্রিদি। মারেন বিশাল বিশাল সব ছক্কা। ১৭ বলে ৫ ছক্কা আর এক চারে ৩৭ করে আউট হন তিনি। ততক্ষণে ম্যাচের এপিটাফ লেখা সারা। চার ওভারেই যে স্কোরবোর্ডে প্রায় ৬০ রান। পরের বলে ক্যামেরন ডেলপোর্টও আউট হয়েছেন। তাতেও কিছু আসে যায়নি।

বাকি কাজ সেরেছেন এভিন লুইস আর সাকিব আল হাসান। চ্যাম্পিয়ন ঢাকা ডায়নামাইটস জিতেছে ৭৩ বল হাতে রেখেই।

টস হেরে ব্যাট করতে নামা সিলেটের ইনফর্ম ওপেনিং জুটির একজন আন্দ্রে ফ্লেচার ছিলেন না। উপুল থারাঙ্গাও পারেননি। আইকন সাব্বির রহমান যেন পথহারা পথিক। প্রতি ম্যাচেই এসেই কিছুক্ষণ থেকে আউট হচ্ছেন। ব্যতিক্রম হয়নি এবারও। আবু হায়দার রনি আর সুনিল নারিন মিলে নিলেন প্রথম চার উইকেট। এরপর শুরু আফ্রিদি ঘুর্নির। পাকিস্তানি তারকা আসরের প্রথম ম্যাচে নেমেই করলেন বাজিমাত। নাসির দিয়ে শুরু। তাকে উইকেট একে একে উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে এসেছেন হাসারাঙ্গা, ব্রেসনান, সোহানরাও।

চার ওভার বল করে মাত্র ১২ রানে আফ্রিদি নিলেন চার উইকেট। ৫৩ রানে ৯ উইকেট হারিয়ে সিলেটের একশো রানের নিচে গুটিয়ে যাওয়া তখন প্রায় নিশ্চিত। তখনই আবুল হাসান রাজুর প্রতিরোধ। হারিয়ে যেতে বসা অলরাউন্ডার পরিচয়টা এদিন আবার ফিরিয়ে এনেছিলেন বলে রক্ষা। না হলে আরও বড় লজ্জায় পড়তে হতো সিলেটকে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
সিলেট সিক্সার্স: ১০১/৯ (থারাঙ্গা ১, গুনাথিলেকা ১৫, সাব্বির ১, নাসির ১০, হোয়াইটলি ৬, সোহান ৮, হাসারাঙ্গা ৮, ব্রেসনান ২, শরিফ ০, ; আফ্রিদি ৪/১২, নারিন ৩/১০)

ঢাকা ডায়নামাইটস: (লুইস ৪৪&, আফ্রিদি ৩৭, ডেলপোর্ট ০, সাকিব ১৮ ; ব্রেসনান ২/২০)

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : শহীদ আফ্রিদি

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর