খেলাধুলা



দেশদর্পণ ডেস্ক

৩ নভেম্বর ২০১৭, ৪:৪৪ অপরাহ্ণ




সিক্সার্সের অধিনায়ক নাসির, রাজশাহী কিংসের সহ-অধিনায়ক মুশফিক

দেশদর্পণ ক্রীড়া :: সিলেট সিক্সার্সের নেতৃত্বভার কার কাঁধে বর্তাচ্ছে তা নিয়ে চাপা কৌতুহল ছিল। রাজশাহী দলে যেমন উইন্ডিজ দলের নেতৃত্ব দেওয়া ডেরিয়েল স্যামি আছেন, তেমনি আছেন বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেওয়া মুশফিক। কেউ একজনকে বেছে নেওয়া যায় অনায়াসে। ঢাকা ডায়নামাইটস বা খুলনার মতো দলগুলোর বেলায় তাই। কিন্তু সিলেটের জন্য পরিস্থিতি ভিন্ন। তাই শেষ পর্যন্ত অধিনায়ক হিসেবে নাসির হোসেনের নামটায় যেমন মিশ্র প্রতিক্রিয়াই মিলল তেমনি মুশফিককে সহ-অধিনায়কের ভূমিকায় দেখেও একই প্রতিক্রিয়া সবখানে।

আজ শুক্রবার অনুশীলনে ঘাম ঝরানোর পর নতুন দায়িত্ব পাওয়ায় চোখেমুখে রোমাঞ্চ থাকলেও নাসির হোসেন খুব স্বাভাবিক থাকার চেষ্টা করলেন। চাপ নয়, অধিনায়কত্ব তাঁর কাছে উপভোগের আরেক নাম বলেই জানালেন ২৫ বছর বয়সী এ অলরাউন্ডার। বললেন, ‘অবশ্যই ভালো লাগছে। অধিনায়কত্ব সব সময় উপভোগ করি। এর আগেও কিছু ম্যাচে অধিনায়কত্ব করেছি। এটা তাই বাড়তি কিছু নয়।’ নিজেদের মাঠে হওয়ায় আত্মবিশ্বাসী তিনি, ‌’এটা আমাদের ঘরের মাঠে (সিলেট) খেলা। দর্শকেরা আমাদের পক্ষে থাকবে। পাশাপাশি চাপেও থাকব। খেলায় তো এসব থাকবেই। আমাদের লক্ষ্য থাকবে ভালো খেলার। ভালো খেললে ফল আমাদের পক্ষে আসবে।’

যদিও অধিনায়কের ভূমিকায় নাসিরের অর্জন এখনও উল্লেখ করার মতো নয়। নাসির এর আগে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন মাত্র দুই ম্যাচে। ২০১৩ বিপিএলে রংপুর রাইডার্সের হয়ে ঢাকার বিপক্ষে অধিনায়কত্ব করেছিলেন। আরেকটি ২০১৫ বিপিএলে ঢাকা ডায়নামাইটসের হয়ে বরিশাল বুলসের বিপক্ষে। দুই ম্যাচেই হেরেছিল তাঁর দল। এ দুই ম্যাচেই অধিনায়ক নাসিরের ব্যাট থেকে এসেছে ১৪ রান।

মুশফিকুর রহিম বিপিএলে কখনো সহ-অধিনায়ক হিসেবে খেলেছেন কিনা বলা মুশকিল। তবে বিপিএলে ৪৬ ম্যাচের ৪২টিতেই মুশফিক খেলেছেন অধিনায়ক হিসেবে। দীর্ঘদিন ধরে সবাই যাঁকে অধিনায়ক হিসেবেই দেখে অভ্যস্ত, সেই মুশফিক এবার রাজশাহী কিংসের হয়ে খেলবেন সহ-অধিনায়ক হিসেবে! গতবারের মতো এবারও রাজশাহীকে নেতৃত্ব দেবেন ড্যারেন স্যামি। মুশফিক অবশ্য সংবাদ সম্মেলনে একটু সংশোধনী দিলেন, ‘আমি তো অনেক দিন জাতীয় দলে একটা সংস্করণের অধিনায়ক!’

তা ঠিক আছে। কিন্তু মুশফিককে সর্বশেষ সহ-অধিনায়ক হিসেবে দেখা গেছে কবে? তবুও নিজের নতুন দায়িত্ব সম্পর্কে তার সহজ উত্তর, ‘প্রতিবছরই ভিন্ন অভিজ্ঞতা হয়। আমি খুশি ও সম্মানিত বোধ করছি, এ বছর রাজশাহীর মতো শক্তিশালী ও ভারসাম্যপূর্ণ দলে খেলতে পারছি। সেখানে ড্যারেন স্যামি নেতৃত্ব দেবে। দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন (টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ) সে। অনেক কিছু শেখার থাকবে তার কাছ থেকে।’ অধিনায়ক না হলেও পেছন থেকে চেষ্টা করবেন স্যামিকে সহায়তা করার বলে জানালেন এই তারকা ক্রিকেটার। বললেন, সব সময়ই চেষ্টা করি আমাকে যে কাজটা দেওয়া হয়, সেটা শতভাগ করার। এবার যদি সহ-অধিনায়ক হিসেবে দলকে অনেক সহায়তা করতে পারি, সেটা অনেক বড় পাওয়া হবে। চ্যালেঞ্জটা নিতে আমি উন্মুখ হয়ে আছি।’

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর