জাতীয়, লিড নিউজ



দেশদর্পণ ডেস্ক

২৪ অক্টোবর ২০১৭, ৩:২৯ অপরাহ্ণ




রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে রাজি হয়েছে মিয়ানমার :: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

দেশদর্পণ ডেস্ক ::  মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে রাজি হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। মঙ্গলবার নেপিদোতে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লে. কর্নেল চ সুয়ির সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানিয়েছেন তিনি ।

তিনি জানান, মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তাকে বৈঠকে বলেছেন রাখাইন থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের নাগরিকদের ফেরত নেবেন। যতজন পালিয়ে গেছে ততজনকেই ফেরত নেবেন। রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের লক্ষ্যে দুই দেশের প্রতিনিধিদের নিয়ে খুব শিগগিরই যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন করা হবে। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ৩০ নভেম্বরের মধ্যেই এই যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠনের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও জানান, তিনি মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বলেছেন, কফি আনান কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবসান প্রক্রিয়া চূড়ান্ত করা হবে। এ ব্যাপারে মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তাকে জানান কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়নের জন্য মিয়ানমার একাধিক কমিটি করেছে। রাখাইন থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে যাওয়া রোহিঙ্গাদের তারা ফেরত নিতে সম্মত আছে। এ সময় মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে জানানো হয়, দু’দেশের সমান সংখ্যক প্রতিনিধি নিয়ে গঠন করা যৌথ ওয়ার্কিং কমিটির তত্ত্বাবধানেই কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবয়ান করতে হবে।

আসাদুজ্জামান খান জানান, তিনি রাখাইনে অবিলম্বে নির্যাতন বন্ধের দাবি করেছেন। নির্যাতন বন্ধ হলে মিয়ানমারের নাগরিকদের বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ বন্ধ হবে।

এ সময় মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দাবি করেন, রাখাইনে কোন নির্যাতন করা হচ্ছে না। তারা নিজেরাই চলে যাচ্ছে। এ সময় আসাদুজ্জামান খান কামাল মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বলেন, মিয়ানমারে নাগরিকদের পালিয়ে যাওয়া ঠেকানোর দায়িত্বও মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের।

বৈঠকে বাংলাদেশ সীমান্ত ঘেঁষে মিয়ানমারের মাইন পাতার প্রসঙ্গও তোলেন তিনি। এ সময় মিয়ানমারের মন্ত্রী এ ঘটনায় ‘অন্যদের’ দায়ী করেন। তবে দ্রুত মাইন অপসারণের প্রতিশ্রুতি দেন চ সুয়ি।

এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, তিনি রাখাইন রাজ্য পরিদর্শনে যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। কিন্তু মিয়ানমারের পক্ষ থেকে ইতিবাচক উত্তর পাননি।

গত সোমবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আদাদুজ্জামান খান কামালের নেতৃত্বে মিয়ানমার সফরে যায় একটি প্রতিনিধি দল। গত সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে রাখাইনে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর জাতিগত নিধনযজ্ঞের বিরুদ্ধে কঠোর প্রতিক্রিয়া আসলে মিয়ানমারের পক্ষ থেকে তাদের একজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ঢাকা সফরের আগ্রহের কথা জানানো হয়। পরে গত ২ অক্টোবর মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলরের দপ্তরের মন্ত্রী টিন্ট সোয়ে ঢাকায় এসে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে বৈঠক করেন। ওই বৈঠকেই মিয়ানমারে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সফর নির্ধারিত হয়।

সংশ্নিষ্ট সূত্র জানায়, মঙ্গলবার মিয়ানমারের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক ছাড়াও মিয়ানমার সরকার ও সেনা বাহিনীর একাধিক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে বৈঠক করেন।

বুধবার মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সুচির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করবেন তিনি।

 

প্র.প/আ-প্র.প

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর