লিড নিউজ, সিলেট প্রতিক্ষণ



দেশদর্পণ ডেস্ক

২১ ডিসেম্বর ২০১৭, ৮:২১ পূর্বাহ্ণ




মুন্নী হত্যা : গ্রেপ্তার বখাটে ইয়াহিয়া

দেশদর্পণ ডেস্ক :: সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে ছুরিকাঘাতে স্কুলছাত্রী হুমায়রা আক্তার মুন্নীকে (১৬) হত্যার ঘটনায় বখাটে ইয়াহিয়া সরদারকে (২২) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সিলেট নগরের একটি বাসা থেকে সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হাবীবুল্লাহর নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে গতকাল বুধবার তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান এক সংবাদ সম্মেলন করে জানান, ইয়াহিয়া সিলেট নগরের জালালাবাদ থানার মাসুকবাজার এলাকার দরসা গ্রামের একটি বাড়িতে আত্মগোপনে ছিলেন। পুলিশ বুধবার রাত একটার দিকে সেখানে অভিযান চালিয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করে। পরে গণমাধ্যমকর্মীদের সামনে ইয়াহিয়াকে হাজির করা হয়।

১৬ ডিসেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে সুনামগঞ্জের দিরাই পৌর শহরের মাদানী মহল্লা এলাকায় ঘরে ঢুকে হুমায়রাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় ইয়াহিয়া। হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান হুমায়রা। প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ক্ষুব্ধ হয়ে ইয়াহিয়া হুমায়রাকে ছুরিকাঘাত করে। হুমায়রা দিরাই বালিকা উচ্চবিদ্যালয় থেকে এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার কথা ছিল। পড়াশোনায় মেধাবী হুমায়রা প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা ও জেএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছিল।

পুলিশ সুপার বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ইয়াহিয়া দাবি করেছেন যে হুমায়রার সঙ্গে তাঁর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ঘটনার দুই দিন আগে তিনি ওই বাসায় গিয়ে নিজের হাত কেটে রক্ত দেখান এবং তাঁর প্রস্তাবে রাজি হওয়ার জন্য বলেন। এ সময় মেয়েটি এই প্রস্তাবে সারা না দিলে ইয়াহিয়া নিজে মরবেন এবং মেয়েটিকেও মারবেন বলে হুমকি দেন। এরপর ১৬ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় ইয়াহিয়া আবার ওই বাসায় যান এবং ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান।

ঘটনার একদিন পর দিরাই থানায় মুন্নীর মা রাহেলা বেগম বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। মামলায় উপজেলার সাকিতপুর গ্রামের জামাল উদ্দিন সরদারের ছেলে মো. ইয়াহিয়া সরদার ও দিরাই পৌর শহরের মাদানী মহল্লা এলাকার বাসিন্দা আবুল কালাম চৌধুরীর ছেলে দিরাই ডিগ্রি কলেজের স্নাতক প্রথম বর্ষের ছাত্র তানভীর আহমদকে (২২) আসামি করা হয়। ওই দিন বিকেলেই পুলিশ ইয়াহিয়ার বন্ধু তানভীরকে গ্রেপ্তার করে।

 

বেআ/আবেআ

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর