জাতীয়



দেশদর্পণ ডেস্ক

৪ ডিসেম্বর ২০১৭, ১:৩২ অপরাহ্ণ




বঙ্গবন্ধু এবং শেখ মনি বেঁচে থাকলে দেশ অনেক আগেই উন্নত হতো : শেখ ফজলুল করিম সেলিম

বঙ্গবন্ধু এবং শেখ মনি বেঁচে থাকলে অনেক আগেই দেশ উন্নত হয়ে যেত বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম। তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর ২১ বছর পাকিস্তানের ধ্যান-ধারণায় দেশ পরিচালিত হয়েছিল। আজ যদি বঙ্গবন্ধু এবং শেখ মনি ভাই বেঁচে থাকতেন, তাহলে অনেক আগেই দেশ উন্নত হয়ে যেত। কিন্তু স্বাধীনতাবিরোধী ও অতি বিপ্লবীরা পরিচালনা করায় দেশ আজ ৫০ বছর পিছিয়ে গেছে। তারা দুজন একসঙ্গে ঘরে এবং বাইরের শত্রুর বিরুদ্ধে কাজ করতে পারলে দেশ অনেক আগেই উন্নত হতো।’

আজ সোমবার (৪ ডিসেম্বর) শেখ ফজলুল হক মনির ৭৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর কলাবাগান মাঠে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

শেখ সেলিম বলেন, ‘অতিবিপ্লবীরা এখনও ষড়যন্ত্র করছে। পাকিস্তানি ধ্যান-ধারণা ভাঙতে অনেক সময় লাগবে। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসায় কিছুটা ভাঙতে পেরেছেন। এখনও ষড়যন্ত্রকাকারীরা ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। এদের বিরুদ্ধে সজাগ থাকতে হবে।’

জিয়াউর রহমানের সমালোচনা করে শেখ মনির ছোট ভাই শেখ সেলিম বলেন, ‘বিশ্বের কোথাও স্বাধীনতাবিরোধীরা রাজনীতি করতে পারে না। কিভাবে সাড়ে তিন বছরের মধ্যে জিয়াউর রহমান তাদের রাজনীতিতে ফিরিয়ে আনলো, ক্ষমতায় আনলো, তা ভাবতে অবাক লাগে। গণতন্ত্রকে ধ্বংস করে পাকিস্তানের ধ্যান-ধারণায় দেশে কিভাবে জিয়াউর রহমান নীল নকশা করেছিল, তা ভাবতে অবাক লাগে।’

বিএনপির সমালোচনা করে সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু ও মনি ভাইকে যদি ভালোবাসেন তাহলে স্বাধানতাকামী মানুষ ঐক্যবদ্ধ হয়ে, স্বাধীনতাবিরোধীরা যাতে ক্ষমতায় না বসতে পারে, সেজন্য শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে সজাগ থাকতে হবে। সবাইকে বুঝাতে হবে যে, দেশটাকে কিভাবে তারা (বিএনপি) পিছিয়ে দিয়েছে। কিভাবে টাকা পাচার করেছে। কিভাবে স্বাধীনতাবিরোধীদের রাজনীতি করতে দিয়েছে। আমার বাংলা হবে সুন্দর স্বপ্নের নীড়। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা। তা করতে হলে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যেতে হবে।’

শেখ মনির ছেলে ঢাকা ১০ আসনের সংসদ সদস্য শেখ ফজলে নূর তাপসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর করিব নানক, পাট ও বস্ত্র প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ প্রমুখ।

 

বেআ/আবে

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর