আন্তর্জাতিক



দেশদর্পণ ডেস্ক

২৪ মার্চ ২০১৮, ২:১৩ অপরাহ্ণ




ফ্রান্সে জিম্মি সংকট: আহত পুলিশ কর্মকর্তার মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: ফ্রান্সে বন্দুকধারীর হাত থেকে এক জিম্মিকে রক্ষা করতে গিয়ে গুলি ও ছুরিকাঘাতে আহত পুলিশ কর্মকর্তার মৃত্যু হয়েছে। তিনি ফরাসি অভিজাত পুলিশ বাহিনীর সদস্য লেফটেন্যান্ট কর্নেল আরনু বেলটাম।

এক টুইটার বার্তায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘তিনি নিজের দেশের জন্য প্রাণ দিয়েছেন। ফ্রান্স কখনো তার বীরত্ব, সাহস ও আত্মত্যাগকে ভুলবে না।’

এর আগে তিনি জানিয়েছিলেন, ‘হামলাকারীর গুলিতে গুরুতর আহত বেলটাম হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন। খবর বিবিসি অনলাইনের।

শুক্রবার সকালে মরোক্কান বংশোদ্ভূত হামলাকারী রেদোয়ান লাকদিম প্রথমে ফ্রান্সের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের শহর কারকাসোনে একজনকে গুলি করে হত্যার পর তার গাড়ি ছিনতাই করে পাশের শহর থ্রেবে যায়।

সেখানে সুপার ইউ নামের একটি সুপারমার্কেটে প্রবেশ করে দুইজনকে হত্যা করে এবং বেশ কয়েকজনকে জিম্মি করে।

পুলিশ কয়েকজন জিম্মিকে মুক্ত করতে সক্ষম হলেও বন্দুকধারী এক নারীকে মানবঢাল হিসেবে ব্যবহার করে।

এ পরিস্থিতিতে জোনদার্ম বাহিনীর সদস্য বেলটাম জিম্মি ওই নারীর মুক্তির বিনিময়ে নিজেকে হামলাকারীর হাতে ছেড়ে দেন। তিনি নিজের ফোন একটি টেবিলের ওপর চালু রাখেন, যাতে বাইরের সহকর্মীরা পরিস্থিতি বুঝতে পারেন।

ওই ফোন লাইনে গুলির শব্দ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ সদস্যরা পরিস্থিতির নিয়ন্ত্রণ নিতে ভেতরে ঢুকে পড়েন। ওই সময়ই পুলিশের গুলিতে হামলাকারীর মৃত্যু হয়।

বেলটামের সাহসের প্রশংসা করে ইমানুয়েল ম্যাকরন বলেন, তিনি মানুষের জীবন বাঁচিয়েছেন ও তার সহকর্মীদের সম্মান জানিয়েছেন।

এ ঘটনায় আরও ১৬ জন আহত হয়েছেন, যাদের মধ্যে দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

হামলায় জড়িত সন্দেহে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি লাকদিমের সঙ্গে ছিলেন বলে ধারণা করছে পুলিশ।

দেশটিতে গত অক্টোবররের পর সবচেয়ে বড় এই সন্ত্রাসী হামলায় পুলিশ কর্মকর্তা বেলটামসহ চারজন নিহত হয়েছেন।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর