খেলাধুলা



দেশদর্পণ ডেস্ক

১৭ মার্চ ২০১৮, ৭:৫৭ অপরাহ্ণ




নো বলটা আমাদের পক্ষে আসা উচিত ছিল: মাশরাফি

দেশদর্পণ ক্রীড়া :: ‘মাঠে হিট অব দ্য মোমেন্টে অনেক কিছুই হতে পারে। নো বলটা আমাদের পক্ষে আসা উচিত ছিল। টি-টোয়েন্টিতে এক ওভারে দুটো বাউন্সার দিলে পরেরটি নো বল হয়। হয়তো আমরা আরেকটু সংযত হলে ভালো হতো। কিন্তু হিট অব দ্য মোমেন্টে হয়ে গেছে ব্যাপারটা।’ আগরে সন্ধ্যার হিট টাইম নিয়ে শনিবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে সাংবাদিকদের এভাবেই বলছিলেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার দৃঢ় বিশ্বাস, দ্বিতীয় বলটা ‘নো’-ই ছিল। শেষ ওভারে বাংলাদেশের জয়ের জন্য প্রয়োজন ১২ রান। ইসুরু উদানার প্রথম বলটি ছিল বাউন্সার। মোস্তাফিজের মাথার ওপর দিয়ে চলে যায় বল। দ্বিতীয়টিও বাউন্সার দিলে ‘নো’ বল ডেকেছিলেন লেগ আম্পায়ার। কিন্তু বোলিং প্রান্তের আম্পায়ার তাতে সাড়া দেননি। এ নিয়ে বাংলাদেশ আর শ্রীলঙ্কার খেলোয়াড়দের মধ্যে বেঁধে যায় দ্বন্দ্ব ।

প্রথম ‍দুটো বল ‘ডট’ হওয়ায় চার বলে প্রয়োজন হয় ১২ রান। তৃতীয় বলে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ চার মারার পরই জয়ের সম্ভাবনায় উজ্জীবিত হয়ে ওঠেন মাশরাফি, ‘চার বলে ১২ রান লাগতো। তখন রিয়াদ চার মারার পর মনে হয়েছে জয় আসা সম্ভব। রিয়াদ অসাধারণ খেলে ১৮ বলে ৪৩ রান করেছে। সে প্রথম থেকেই যেভাবে অ্যাটাক করেছে সেটা সত্যিই দারুণ। টি-টোয়েন্টি ম্যাচে আসলে একজনকে এরকম খেলতে হয়। তবে প্রতিদিন রিয়াদ খেলবে না, অন্যদিন কাউকে না কাউকে খেলতে হবে।’

মাশরাফির মতে, নিদাহাস ট্রফিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুটি ম্যাচই টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের সেরা পারফরম্যান্স, ‘বাংলাদেশের সেরা দুটি টি-টোয়েন্টির হিসেব করলে নিদাহাস ট্রফিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুটি ম্যাচকে রাখতে হবে। মুশফিক আগের ম্যাচ জেতালো, আর কাল রিয়াদ জয় এনে দিলো। তামিমের অবদান কম নয়, আগের ম্যাচে লিটনেরও অবদান ছিল। কাল তামিম আউট না হলে আরও আগেই আমরা জিততে পারতাম।’

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর