অর্থ ও বাণিজ্য, সিলেট প্রতিক্ষণ



দেশদর্পণ ডেস্ক

২৩ ডিসেম্বর ২০১৭, ৪:১৮ অপরাহ্ণ




দুই দিনব্যাপী বীমা মেলা সম্পন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক :: ঢাকার বাহিরে প্রথমবারের মতো সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার জিমনেসিয়ামে আয়োজিত দুই দিনব্যাপী বীমা মেলা সম্পন্ন হয়েছে। বীমা গ্রাহকদের মধ্যে সচেতনতা বাড়ানোর লক্ষ্যে এই মেলার আয়োজন করে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)।

শনিবার (২৩ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় সিলেটের কবি নজরুল অডিটোরিয়ামে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মেলার সমাপ্তি ঘোষণা করেন আইডিআরএ -এর চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান পাটোয়ারী। অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ, বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স এসোসিয়েশন, বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স ফোরাম এবং বীমা সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান মেলা আয়োজনে সহযোগিতা করেছে।

বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের সদস্য ও বীমা মেলা আয়োজক কমিটি ২০১৭- এর সভাপতি গকুল চাঁদ দাসের সভাপতিত্বে আয়োজিত সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যের আইডিআরএ চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের প্রথম লক্ষ্য হলো বীমা সেক্টরের প্রচার এবং এই সেক্টরের যে ইমেজ সংকট আছে তা দূর করা। আপনাদের (বীমা কোম্পানি) যে বদনাম ছিল তা অল্প সময়ে ঘুচে যাবে, যদি আপনারা আন্তরিক হন। বীমা খাতের ইমেজ বাড়ানোর স্বার্থে আমরা সবকিছু করব।

গতকাল শুক্রবার সকাল ৯টায় নগরীতৎ র‌্যালির মাধ্যমে দুইদিনের এই বীমা মেলার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। আকর্ষণীয়ভাবে র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করে শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত হয়েছে পপুলার লাইফ। দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেছে মেটলাইফ এবং তৃতীয় স্থান অধিকার করেছে ন্যাশনাল লাইফ। এই তিনটি প্রতিষ্ঠানকেই সমাপণী অনুষ্ঠানে বিশেষ পুরস্কার দেয়া হয়।

একই সঙ্গে মেলায় অংশগ্রহণ করা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে থেকে তিনটি সেরা প্রতিষ্ঠান নির্বাচন করা হয়। মেলায় আকর্ষণীয় স্টল হিসেবে প্রথম পুরস্কার পেয়েছে গ্রীণ ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স। আর পপুলার লাইফ দ্বিতীয় এবং সন্ধানী লাইফ তৃতীয় হয়েছে। দেশের দু’টি সরকারি বীমা প্রতিষ্ঠান জীবন বীমা করপোরেশন এবং সাধারণ বীমা করপোরেশনের পাশাপাশি ৩০টি বেসরকারি বীমা কোম্পানি মেলায় অংশগ্রহণ করে।

এদিকে সিলেটের বীমা মেলা গ্রাহকদের তেমন আকৃষ্ট করতে পারেনি। মেলা প্রাঙ্গণে ঘুরে দেখা যায়, অধিকাংশ স্টলেই দর্শনার্থীর সংখ্যা ছিল খুবই কম। এ বিষয়ে মেলা আয়োজক কমিটির মহাসচিব বি এম ইউসুফ আলী সাংবাদিকদের বলেন, দেশের অন্যান্য এলাকার চেয়ে সিলেট এলাকার মানুষের বীমা নিয়ে আগ্রহ কম। এ কারণে মেলায় গ্রাহকদের উপস্থিতি কিছুটা কম ছিল।

প্র.প/আ-প্র.প

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর