সিলেট প্রতিক্ষণ



দেশদর্পণ ডেস্ক

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:০৮ অপরাহ্ণ




ছাত্রাবাসে গণধর্ষণের ঘটনায় জেলা আওয়ামী লীগের নিন্দা, গ্রেপ্তার দাবি

সিলেটের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে গণধর্ষণের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগ। সেই সঙ্গে ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করা হয়েছে সংগঠনের পক্ষ থেকে। পাশাপাশি প্রয়োজনে ধর্ষিতাকে আইনী সহায়তা প্রদানের কথাও জানান তারা।

আজ শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মো. লুৎফুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. নাসির উদ্দিন খান যৌথ বিবৃতিতে এই নিন্দা জানান।

বিবৃতিতে তারা বলেন, ‘এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে কতিপয় ছাত্র নামধারী দুর্বৃত্ত ঐতিহ্যবাহী এ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে কলুষিত করেছে। আমারা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সিলেট জেলা শাখার সভাপতি অ্যাডভোকেট মো. লুৎফুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. নাসির উদ্দিন খান ন্যাক্কারজনক এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। সেই সাথে দোষীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য জোর দাবী জানাচ্ছি।

তারা আরও বলেন, ‘করোনাকালীন সময়ে যেখানে সারা দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে সেখানে সিলেট এমসি কলেজের মত স্বনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রাবাসে যেভাবে দুর্বৃত্তরা প্রবেশ করে স্বামীকে আটকে স্ত্রীকে ধর্ষণ করেছে, তা আমরা কিছুতেই মেনে নিতে পারছিনা। আমরা সিলেট জেলা আওয়ামী লীগ সর্ব্বোতভাবে নির্যাতিতা উক্ত নারী ও তার পরিবারের পাশে থেকে যতটুকু আইনী সহায়তা প্রদান করা প্রয়োজন তা করতে প্রস্তুত আছি।’ পাশাপাশি তারা প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও ছাত্রাবাস বন্ধ থাকাকালীন সময়ে কিভাবে দুর্বৃত্তরা স্বামী-স্ত্রীকে ধরে নিয়ে ছাত্রাবাসে প্রবেশের সুযোগ পেল তা সিলেট জেলা আওয়ামী লীগ কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে চায়। কলেজ কর্তৃপক্ষ তাদের দায়িত্বাধীন প্রতিষ্ঠানে আদৌ কোনো নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছিলেন কি না তা আজ প্রশ্নবিদ্ধ।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘আমরা সিলেট এমসি কলেজের অদক্ষ, দায়িত্বহীন অধ্যক্ষ ও ছাত্রবাস সুপারের পদত্যাগ দাবী করছি। উক্ত ন্যাক্কারজনক ঘটনার সাথে যারা জড়িত তারা কোনো দলের হতে পারে না। ধর্ষকদের কোন দল নেই। তাদের পরিচয় একটাই তারা ঘৃণ্য অপরাধী। অনতিবিলম্বে এই ঘৃণ্য অপরাধীদের গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় নিয়ে আসার জন্য সংশ্লিস্ট প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।’

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর