জাতীয়



দেশদর্পণ ডেস্ক

৭ মার্চ ২০১৮, ২:০৮ পূর্বাহ্ণ




ইউনেসকোর স্বীকৃতি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধেরই স্বীকৃতি: প্রধানমন্ত্রী

দেশদর্পণ ডেস্ক :: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জাতির পিতার ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণকে বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে ইউনেসকোর স্বীকৃতি মুক্তিযুদ্ধের অসাম্প্রদায়িক চেতনা ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধকেই স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে।

গত বছরের ৩০ অক্টোবর জাতির পিতার ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণকে বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি দেয় জাতিসংঘের শিক্ষা বিজ্ঞান ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সংস্থা ইউনেসকো। এ জন্য সমগ্র দেশ ও জাতি গর্বিত উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি বাংলাদেশ সরকার এবং বাঙালি জাতির পক্ষ থেকে ইউনেসকো সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি। এই স্বীকৃতির মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের অসাম্প্রদায়িক চেতনা ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধকেই স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রী ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে মঙ্গলবার (৬ মার্চ) দেওয়া এক বাণীতে এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী তার বাণীতে বলেন, ‘সরকার জাতির পিতার অসমাপ্ত কাজগুলো বাস্তবায়ন করছে। তিনি যে সোনার বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন, বাঙালি জাতির জন্য যে উন্নত জীবনের কথা ভেবেছিলেন, তার সেই স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দেওয়া হচ্ছে।’

তিনি বলেন, “গত ৯ বছরে আমরা দেশের প্রতিটি খাতে কাঙ্ক্ষিত অগ্রগতি অর্জন করেছি। মানুষ উন্নয়নের সুফল উপভোগ করছে। আর্থসামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন বিশ্বে ‘রোল মডেল’। আমরা বাংলাদেশকে ২০২১ সালের আগেই মধ্যম আয়ের এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করবো, ইনশাআল্লাহ।”

শেখ হাসিনা বলেন, “বাঙালি জাতির হাজার বছরের ইতিহাসে ৭ মার্চ এক অবিস্মরণীয় দিন। বাঙালির বীরত্বপূর্ণ সংগ্রাম ও সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধে জাতির পিতার এই ভাষণের দিকনির্দেশনাই ছিল সে সময় বজ্রকঠিন জাতীয় ঐক্যের মূলমন্ত্র। কালজয়ী এই ভাষণ বিশ্বের শোষিত, বঞ্চিত ও মুক্তিকামী মানুষকে সব সময় প্রেরণা যুগিয়ে যাবে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধ আর বহু ত্যাগের বিনিময়ে আমরা ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর চূড়ান্ত বিজয় অর্জন করি। পরাধীনতার শৃঙ্খল থেকে ছিনিয়ে আনি মহান স্বাধীনতা, বাঙালি জাতি পায় মুক্তির কাঙ্ক্ষিত স্বাদ। প্রতিষ্ঠা পায় স্বাধীন, সার্বভৌম রাষ্ট্র বাংলাদেশ।’

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ রাজনৈতিক ভাষণ উল্লেখ করে তিনি বলেন, “লেখক ও ইতিহাসবিদ জ্যাকব এফ ফিল্ড-এর বিশ্বসেরা ভাষণ নিয়ে লেখা ‘উই শ্যাল ফাইট অন দ্য বিচেস: দ্য স্পিস দ্যাট ইনস্পায়ার্ড হিস্টোরি’ বইয়ে এই ভাষণ স্থান পেয়েছে। অসংখ্য ভাষায় অনুদিত হয়েছে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ।”

প্রধানমন্ত্রী সব0 ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে দেশের উন্নয়নে কাজ করা এবং গণতান্ত্রিক মূল্যবোধকে সমুন্নত রাখার আহবান জানান। তিনি বলেন, ‘আসুন সবাই মিলে একটি অসাম্প্রদায়িক, ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত ও সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তুলি। প্রতিষ্ঠা করি জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ। ঐতিহাসিক ৭ মার্চে এই হোক আমাদের অঙ্গীকার।’

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর