সিলেট প্রতিক্ষণ



দেশদর্পণ ডেস্ক

২৮ মার্চ ২০১৮, ৬:৫১ অপরাহ্ণ




আদালতে ছিনতাইকারী আতিকের স্বীকারোক্তি

দেশদর্পণ ডেস্ক :: শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মাহিদ হত্যার ঘটনায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে ছিনতাইকারী মির্জা আতিক। আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে সে জানায়, দুটি মোটরসাইকেলে চার ছিনতাইকারী নগরের ক্বীন ব্রিজের দক্ষিণ পাশে আক্রমণ করে মাহিদকে। এরপর তাকে ছুরিকাঘাত করে মোবাইল ও মানিব্যাগ ছিনতাই করে পালিয়ে যায়।

আজ বুধবার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রহমান সিদ্দিকীর আদালতে সে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

মাহিদ হত্যার ঘটনায় গত মঙ্গলবার রাতে নিহতের চাচা সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এটিএম হাসান জেবুল চারজনতে আসামি করে দক্ষিণ সুরমা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার আসামিরা হল মির্জা আতিক, সায়েফ মো. রিপন, শাকিল ও রাসেল। এদের মধ্যে মির্জা আতিক ও সায়েফ মো. রিপনকে মঙ্গলবার দিবাগত রাতেই পুলিশ গ্রেপ্তার করে। আজ বিকেলে তাদের আদালতে হাজির করা হলে মীর্জা আতিক আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। অপর আসামি রিপনকে পুলিশ তিনদিনের রিমান্ডে নিয়েছে।

দক্ষিণ সুরমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খায়রুল ফজল বিষয়টি নিশ্চত করে বলেন, মঙ্গলবার রাতে দক্ষিণ সুরমার ভার্থখলা কবরস্থানের পাশ থেকে আতিক ও রিপনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরা পেশাদার ছিনতাইকারী। এদের বিরুদ্ধে ছিনতাইয়ের আরো কয়েকটি মামলা রয়েছে।’ মির্জা আতিকের স্বীকারোক্তি মোতাবেক হামলার সময় ব্যবহৃত ছুরিও উদ্ধার করা হয়েছে জানি তিনি বলেন, এ ঘটনায় জড়িত অপর দু’জনকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

সিলেট মহানগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (প্রসিকিউশন) অমূল্য চৌধুরী বলেন, আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করেছে মির্জা আতিক। ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যেই তারা ছুরিকাঘাত করে বলে জানিয়েছেন। দুটি মোটরসাইকেলে করে তারা চারজন ছিনতাইয়ে অংশ নেয় বলেও আদালতকে জানিয়েছে আতিক।

তিনি বলেন, এই মামলায় তায়েফ মো. রিপন নামের আরেকজনকে আদালতে হাজির করে ৭ দিনের রিমাণ্ড চাইলে আদালত তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, আতিক আদালতে জানিয়েছে, ক্বীন ব্রিজ পেরোনোর পরই দুই মোটরসাইকেলে করে ৪ জন এসে ঘিরে ধরে মাহিদ আল সালামকে। একজন শুরুতেই তার উরুতে ছুরি দিয়ে আঘাত করে। এরপরই অন্যরা ছিনিয়ে নেয় মাহিদের টাকাপয়সা ও মোবাইল ফোন। ছিনতাইয়ের পর মোটরসাইকেল নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায় তারা।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর