জাতীয়



দেশদর্পণ ডেস্ক

২৫ নভেম্বর ২০১৭, ৯:৩০ পূর্বাহ্ণ




অভিজিৎ রায় হত্যা মামলার আসামি আরাফাত গ্রেপ্তার

দেশদর্পণ ডেস্ক :: ব্লগার ও বিজ্ঞানবিষয়ক লেখক অভিজিৎ রায় হত্যা মামলার আসামি সাজ্জাদ ওরফে শামস ওরফে আরাফাতকে (২৪) গতকাল শুক্রবার সাভারের আমিনবাজারের বরদেশী এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট।

সে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) অপারেশন শাখার সদস্য। তাঁর প্রকৃত নাম মো. আরাফাত রহমান আর সাংগঠনিক নাম সিয়াম ওরফে সাজ্জাদ বলে জানিয়েছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারের পর আরাফাত পুলিশকে জানিয়েছে, তাঁদের সংগঠনের বড় ভাইয়ের (জিয়া) নির্দেশে এবং পরিচালনায় এ হত্যাকাণ্ডে তাঁরা অংশ নেয়। সে জুলহাস-তনয়, নিলয় ও দীপন হত্যাকাণ্ডে অংশগ্রহণ করেছিল বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে।

কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) জাহিদুল তালুকদার জানান, ‘গতকাল সন্ধ্যায় সাভারের আমিনবাজার এলাকা থেকে সাজ্জাদকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় সাজ্জাদ তাঁদের সংগঠনের আরেক সদস্যের সঙ্গে দেখা করতে যাচ্ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁর পড়াশোনা উচ্চমাধ্যমিক পর্যন্ত। সাজ্জাদকে ধরতে দুই লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছিল।

পুলিশের দাবি, সাজ্জাদ অভিজৎকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়েছিলেন।

২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি চত্বরের কাছে দুর্বৃত্তদের চাপাতির কোপে ব্লগার ও বিজ্ঞানবিষয়ক লেখক অভিজিৎ রায় নিহত হন। এ ঘটনায় তাঁর স্ত্রী রাফিদা আহমেদ বন্যাও আহত হন। তাঁরা দুজনই যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক। অমর একুশে বইমেলা উপলক্ষে তাঁরা দেশে এসেছিলেন। বইমেলা থেকে বেরিয়ে বাসায় ফেরার পথে তাঁরা হামলার শিকার হন।

এ পর্যন্ত অভিজিৎ রায় হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ১১ জন গ্রেফতার হয়েছে। তাঁদের মধ্যে ডিএমপির কাউন্টার টেরোরিজমের গ্রেপ্তার দুজন বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

 

 

বেআ/আবে

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর