আন্তর্জাতিক



দেশদর্পণ ডেস্ক

২৮ ডিসেম্বর ২০১৭, ৫:২০ পূর্বাহ্ণ




অনেক পরিকল্পনা অসম্পূর্ণ থাকার আফসোসও আছে

দেশদর্পণ ডেস্ক :: সম্প্রতি ব্রিটিশ যুবরাজ হ্যারিকে একটি সাক্ষাৎকার দিয়েছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির হয়ে সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন হ্যারি। সেখানে আমেরিকার প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট বলেছেন নিজের পরিবার, স্ত্রী, আমেরিকার দায়িত্বে থাকার বিষয়ে। পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার নিয়েও মতামত দিয়েছেন। ত

বুধবারের বিবিসি রেডিও ৪ এর অনুষ্ঠানে বিশেষ এক সাক্ষাৎকার দেন বারাক ওবামা। আর এ সাক্ষাৎকার নেন প্রিন্স হ্যারি। ওবামার মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদ ছাড়ার পর বিরল কয়েকটি সাক্ষাতকারের মধ্যে এটি একটি। সাক্ষাৎকারে নিজের মেয়াদকাল, ক্ষমতা হস্তান্তরসহ ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কেও খোলামেলা আলাপ করেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম এ কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট।

সাক্ষাৎকারে প্রিন্স হ্যারি ওবামাকে প্রশ্ন করেন যে, আমি কী আপনাকে ২০১৭ এর জানুয়ারিতে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে পারি? আপনি যখন ডোলাল্ড ট্রাম্পকে ক্ষমতা দিচ্ছিলেন। কী চলছিল তখন আপনার মনে?

বারাক ওবামা বলেন, “সব থেকে প্রথমে যে বিষয়টি আমার ভাবনায় ছিল তা হল নিজেকে খুব ধন্য মনে হচ্ছিল যে মিশেল আমার পাশে ছিল। প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন সময়ের পুরোটা সফরে সে আমার পাশে ছিল। মিশেল এবং আমি এখনও একে অপরের ভালো বন্ধু। সে রাজনীতির সাথে খুব একটা পরিচিত না কিন্তু সব সময়ই আমার যে কোন সময়ে তাকে পাশে পেয়েছি আমি”।

এসময় মিশেলকে অন্যতম সেরা ‘ফার্স্ট লেডি’ হিসেবে উল্লেখ করে ওবামা বলেন, “একজন ফার্স্ট লেডি হিসেবে সে ছিল অন্যতম। এর অন্যতম একটা কারণ হচ্ছে আমাদের বৈবাহিক সম্পর্ক খুবই দৃঢ়। আমাদের দুই মেয়েও বড় হচ্ছে। আমাদের পারিবারিক বন্ধনটাও খুব দৃঢ়”।

সাক্ষাৎকারে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের দায়িত্বশীল ব্যবহারের প্রতি আহ্বান জানান বারাক ওবামা। তিনি বলেন, “সমস্যা হচ্ছে যে, সামাজিক মাধ্যমে আমরা যাদের সাথে যোগাযোগ করছি বাস্তবে তারা একেবারে বিপরীত ধরনের মানুষ হতে পারেন। তাই এখন প্রশ্ন হচ্ছে কীভাবে আমরা সামাজিক মাধ্যমকে ব্যবহার করতে পারি যেন তা সমাজের সবার মধ্যে আন্তরিকতা বাড়াবে কিন্তু এর দ্বারা ক্ষতি হবে না”।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে যদি দায়িত্বশীলভাবে ব্যবহার করা হয় তাহলে এর সমাধান হবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের থেকে সরাসরি যোগাযোগের প্রতি গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, “সামাজিক মাধ্যমের যোগযোগটা অনেকখানি সরল। এর থেকে যদি অফলাইনে যোগ করা হয় তাহলে সেটা আরও বেশি কার্যকর। একসাথে গীর্জায় যাওয়া কিংবা পার্কে জনগণের সাথে সরাসরি মানুষের সাথে কথা বলা আমাদের যোগাযোগকে আরও মজবুত করে”।

প্রিন্স হ্যারির এক প্রশ্নের জবাবে প্রেসিডেন্ট পদ ছাড়ার সময়কার কথাও বলেন তিনি। নিজের মেয়াদকাল নিয়ে ‘মিশ্র প্রতিক্রিয়া’ হয় বলে জানান তিনি। তিনি বলেন, “একদিকে দেশের উন্নতি করার আনন্দ আবার অন্যদিকে অনেক পরিকল্পনা অসম্পূর্ণ থেকে যাওয়ার আফসোসও কাজ করছিল। তবে ‘ওবামা কেয়ার’ প্রতিষ্ঠা করতে পেরে খুবই ভালো লাগে নিজের কাছে। এর আওতায় দুই কোটি মার্কিন নাগরিক এখন স্বাস্থ্য সেবা ও ইন্স্যুরেন্স পাচ্ছে যা আগে ছিল না”।

এছাড়াও সামরিক বাহিনী, মানসিক স্বাস্থ্য, অপরাধ এবং জলবায়ু পরিবর্তন নিয়েও কথা বলেন বারাক ওবামা।

সূত্র- বিবিসি

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর